29 C
Bangladesh
Tuesday, May 17, 2022

ড্রাইভিং লাইসেন্স এর আবেদন করার নিয়ম ২০২২ Driving license apply bd

- Advertisement -
- Advertisement -

Driving license apply bd : বৈধ মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যতীত যানবাহন ড্রাইভিং করা আইনত দণ্ডনীয়। চলুন জেনে নেয়া যাক, অন্য কোন যানবাহন বা মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য অনলাইনে আবেদন করার নিয়ম ও বা্ড্রইইভিং লাইসেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম । motorcycle license বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে ।

Driving license apply bd

বাংলাদেশের সকল প্রকার যানবাহন এর লাইসেন্স দেয় বিআরটি (brta) এ সংস্থা। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ বা বিআরটিএ বাংলাদেশের একমাত্র সরকারি প্রতিষ্ঠান যেটা সকল প্রকারের যানবাহনের ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে থাকে। 

ড্রাইভিং লাইসেন্স সাধারনত দুই ধরনের হয়ে থাকে

  • পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স : যদি আপনি ড্রাইভিংকে পেশা হিসেবে নিতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে পেশাদার লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে। 
  • অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স : আপনার যদি নিজস্ব কোন বাহন থাকে এবং সেটি আপনি নিজেই ড্রাইভিং করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে।

আমরা অনেকেই মনে করি যে পেশাদার লাইসেন্স করলেই ভারী যানবাহনের লাইসেন্স পাওয়া যায়। এ ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল। কেননা পেশাদার লাইসেন্স করলেই প্রথমে ভারী যানবাহনের লাইসেন্স দেয়া হয় না। 

ড্রাইভিং লাইসেন্স পেশাদার লাইসেন্স আবার তিন ধরনের হয় :

  • পেশাদার হালকা।
  • এবং পেশাদার মধ্যম।
  • পেশাদার ভারী।

ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদনের কাগজপত্র কি কি?

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স করার পূর্বশর্তগুলো উল্লেখ করা হলো :

  • ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার প্রথম ও প্রধান পূর্ব শর্ত হল লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া।
  • আবেদনকারীর শিক্ষাগত যোগ্যতা ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে।
  • অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নূন্যতম বয়স ১৮ বছর। এবং পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নূন্যতম বয়স ২১ বছর।
  • মানসিক ও শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ হতে হবে।

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন

ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আপনাকে এই লিঙ্কে প্রবেশ করে যাবতীয় তথ্য যথাযথভাবে পূরণ করে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। 

অনলাইনে আবেদন করার পর শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স টি ইস্যু হবে, এবং আপনি সেটি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করেতে পারবেন। এরপর দুই থেকে তিন মাস প্রশিক্ষণ গ্রহণ করার পর নির্ধারিত দিনে আপনাকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

কোথায়, কখন লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে তা আপনাকে আগেই জানিয়ে দেওয়া হবে। পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সময় অবশ্যই আপনাকে শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স এর মূলকপি সঙ্গে আনতে হবে। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এই ফর্মে একজন প্রশিক্ষক এর তথ্য আপনাকে দিতে হবে।

How To apply for Driving Licence in Bangladesh

ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২২ – লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার জন্য বেশকিছু কাগজপত্রের প্রয়োজন পড়বে, যে সমস্ত কাগজপত্র প্রয়োজন হবে সেগুলোর তালিকা নিম্নে দেওয়া হল :

মটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স করার পদ্ধতি

  • আবেদন ফরম। আবেদন ফরম টি পেতে এখানে ক্লিক করুন। 
  • আবেদনকারীর সদ্য তোলা ৩ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং ১ কপি স্ট্যাম্প সাইজের ছবি।ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ১৫০ কেবি এবং ছবির পরিমাপ সর্বোচ্চ ৩০০ ✕ ৩০০ পিক্সেল হতে হবে। 
  • রেজিষ্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সনদ। ( সাইজ সর্বোচ্চ ৬০০কেবি ) । মেডিকেল সার্টিফিকেট এর ফর্ম টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন
  • জাতীয় পরিচয় পত্রের স্ক্যান কপি।  ( সাইজ সর্বোচ্চ ৬০০ কেবি )
  • ইউটিলিটি বিল ( বিদ্যুৎ বিল ) এর স্ক্যান কপি। এক্ষেত্রে একটি বিষয় মনে রাখতে হবে, আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের ঠিকানা যদি বর্তমান ঠিকানার সাথে মিল না থাকে, তাহলে বর্তমান ঠিকানার ইউটিলিটি বিল সংযুক্ত করতে হবে।
  • নির্ধারিত ফি প্রদান করতে হবে। ক্যাটাগরি ১ এর ফিঃ ৩৪৫ টাকা এবং ক্যাটাগরি ২ এর ফিঃ ৫১৮ টাকা। 

ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২২

লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্সটি আপনি সর্বোচ্চ তিন মাস ব্যবহার করতে পারবেন এরপর আর সেটি ব্যবহার করতে পারবেন না। এর মধ্যেই আপনার লিখিত, ফিল্ড টেস্ট এবং মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে।

যদি আপনি লিখিত, ফিল্ড টেস্ট এবং মৌখিক পরীক্ষায় সফলভাবে কৃতকার্য হাতে পারেন, তারপর আপনাকে মূল লাইসেন্স তথা স্মার্ট কার্ড লাইসেন্স সংগ্রহ করতে হবে। যার মেয়াদ হবে ১০ বছর। 

সেজন্য আপনাকে পুনরায় বিআরটিএর সংশ্লিষ্ট সার্কেলে আবেদন করতে হবে। যেহেতু এটি স্মার্ট কার্ড লাইসেন্স তাই এই লাইসেন্স পেতে হলে বিটিআরসির সার্কেল অফিসে গিয়ে আপনাকে বায়োমেট্রিক ( আঙ্গুলের ছাপ, ডিজিটাল স্বাক্ষর, ছবি )  তথ্য দিতে হবে। 

আবেদন করার পূর্বে অবশ্যই এমবিবিএস ডাক্তার দ্বারা সত্যায়িত করতে হবে –

ড্রাইভিং লাইসেন্স মেডিকেল ফরম
ড্রাইভিং লাইসেন্স মেডিকেল ফরম

মোটরসাইকেল স্মার্ট কার্ড আবেদন

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু করার জন্য আপনার নির্দিষ্ট কিছু কাগজপত্র প্রয়োজন হবে। কি কি কাগজ প্রয়োজন হবে সেগুলো নিচে দেওয়া হল :

  • নির্ধারিত আবেদন ফরম। আবেদন ফরম টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন
  • রেজিষ্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সনদ। মেডিকেল সার্টিফিকেট এর ফর্ম টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন
  • ন্যাশনাল আইডি কার্ডের সত্যায়িত কপি।
  • নির্ধারিত ফি  রশিদ। ( অপেশাদার ২৫৪২ টাকা এবং পেশাদার ১৬৭৯ টাকা। ) বিআরটিএ’র নির্ধারিত ব্যাংকে জমা দানের পর রশিদ সংগ্রহ করতে হবে।
  • পুলিশি তদন্ত প্রতিবেদন। ( শুধুমাত্র পেশাদার লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)
  • সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবি। ১ কপি।

উপরোক্ত তথ্যাদি প্রদানের পর আপনার স্মার্ট কার্ড লাইসেন্স ইস্যু করা হবে। যখন আপনার স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স টি সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত হয়ে যাবে এবং প্রিন্ট হয়ে সংশ্লিষ্ট অফিসে আসবে তখন এসএমএসের মাধ্যমে আপনাকে জানানো হবে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষায় কি ধরনের প্রশ্ন উত্তর

মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তর :

যানবাহন বা মোটরযান কাকে বলে?

উত্তরঃ যানবাহন হলো এমন একটি বাহন যার চালিকা শক্তি বা জ্বালানি ভিতরের বা বাইরের কোন উৎস থাকে সরবরাহ হয়ে থাকে।

বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী মোটরসাইকেলের সর্বোচ্চ গতিসীমা কত?

উত্তরঃ ৭০ কিলমিটার। 

ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়সসীমা কত?

উত্তরঃ ১৮ বছর। 

ভারী মোটরযান কাকে বলে?

উত্তরঃ যে সকল যানবাহন এর ওজন ৬৫০০ কেজির বেশি

ট্রাফিক সিগন্যাল কত প্রকার?

উত্তরঃ ৩ প্রকার।

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার নিয়ম ২০২২ 

বিআরটিএ কতৃক নির্ধারিত ফি জমাদান পূর্বক প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র সহ সংশ্লিষ্ট বিআরটিএ অফিস আবেদন করতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে আবেদন করলে ২৪২৭ টাকা ফি প্রদান করতে হবে। এবং মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার সময় ১৫ দিন পার হয়ে গেল, প্রতি বছরের জন্য ২৩০ টাকা হারে জরিমানা সহ ফী প্রদান করতে হবে। 
প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলো সঠিক পাওয়া গেলে একই দিনে গ্রাহকের বায়োমেট্রিক তথ্যাদি ( ডিজিটাল স্বাক্ষর, ছবি এবং আঙ্গুলের ছাপ) সংগ্রহ করা হয়। অতঃপর উক্ত প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়ে গেলে, স্মার্ট কার্ড লাইসেন্সটি পুনরায় প্রিন্টিং এর জন্য প্রস্তুত করা হয়। 
স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স টি প্রিন্ট হওয়ার পর বিআরটিএ সংশ্লিষ্ট সার্কেল থেকে গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে জানানো হয়। এবং সেখান থেকে সদ্য নবায়নকৃত স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্সটি সংগ্রহ করতে পারে

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র 

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য যে সমস্ত কাগজপত্র প্রয়োজন হবে সেগুলো নিচে দেওয়া হল:

  • নির্ধারিত আবেদন ফরম আবেদন।
  • রেজিস্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সনদ।
  • ন্যাশনাল আইডি কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র।
  • নির্ধারিত ফি জমাদানের রশিদ।
  • সদ্যতোলা ১ কপি পাসপোর্ট ও ১ কপি স্ট্যাম্প সাইজের ছবি।
  • পুলিশি তদন্ত ভেরিফিকেশন ( পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে )

মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি কত?

ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি ২০২২ – মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি ২০২২ ।

(ক) ক্যাটাগরি “১” এর লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফিঃ ৩৪৫ টাকা। শুধুমাত্র মোটরসাইকেল অথবা যেকোনো এক ধরনের হালকা মোটরযান ক্যাটাগরি “১” এর অন্তর্ভুক্ত।

(খ) ক্যাটাগরি “২” এর লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফিঃ ৫১৮ টাকা। মোটরসাইকেলের সাথে অন্য আরেকটি হালকা মোটরযান। অর্থাৎ মোটরসাইকেল এবং এর সাথে আরেকটি হালকা মোটরযান যুক্ত হলে এটি ক্যাটাগরি “২” এর অন্তর্ভুক্ত হয়।

মোটরসাইকেল স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি

(ক) পেশাদার স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স ফিঃ ১৬৮০ টাকা। ( ৫ বছরের নবায়ন ফি সহ)।(ক) অপেশাদার স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স ফিঃ ২৫৪২ টাকা। ( ১০ বছরের নবায়ন ফি সহ)। 

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন ফি

(ক) পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন ফিঃ মেয়াদোত্তীর্ণের ১৫ দিনের মধ্যে হলে ১৫৬৫ টাকা।

(খ) অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন ফিঃ মেয়াদোত্তীর্ণের ১৫ দিনের মধ্যে হলে ২৪২৭ টাকা।

(গ) পেশাদার ও অপেশাদার অভয় লাইসেন্সের ক্ষেত্রেই মেয়াদ উত্তীর্ণের ১৫ দিন পার হলে প্রতি বছরের জন্য ২৩০ টাকা হারে জরিমানা প্রদান করতে হবে।

(ঘ) ড্রাইভিং লাইসেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম অনুযায়ী ড্রাইভিং লাইসেন্স ট্রান্সফার করার সময় ২৩০ টাকা বিআরটিএ কর্তৃক অনুমোদিত ব্যাংকে জমা দিতে হবে। 

অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম

এসএমএসের মাধ্যমে অনলাইন ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক বা লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে  মোবাইল ফোনের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে DL < Space> Reference no লিখে মেসেজ পাঠিয়ে দিন এই ২৬৯৬৯ নাম্বারে।( Reference no আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সের ফরমে উল্লেখ করা থাকবে)।
অথবা DL < স্পেস > Driving License Number লিখে 01552146222 নাম্বারে পাঠিয়ে দিন। ৫ মিনিটের মধ্যে আপনি পেয়ে যাবেন একটি ফিরতি এসএমএস আর সেখানেই আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ এর মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম ইতোপূর্বে বর্ণনা করা হয়েছে সেই অনুযায়ী আপনি DL Checker অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন। এরপর আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স নাম্বার দিয়ে স্ক্রল করুন একটি কিউআর কোড পাবেন বা ডাউনলোড/প্রিন্ট করার অপশন পাবেন, সেখান থেকে আপনি অনায়াসেই ড্রাইভিং লাইসেন্স ডাউনলোড করতে পারবেন।

Post Related Things: motorcycle driving licence fee in bangladesh,motorcycle driving licence codes, motorcycle driving license fee in bd, motorcycle licence explained, motorcycle driving license fee in bangladesh, motorcycle driving licence bd, can i drive motorcycle with lmv licence, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ছবি, ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২২, ড্রাইভিং লাইসেন্স ফরম pdf, ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন ফরম, ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি ২০২২, মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স,

Latest news
- Advertisement -
Related news
- Advertisement -